বাউবি ৩০ বছরে পদার্পন
স্বপ্নের ঠিকানা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়
Published : Thursday, 20 October, 2022 at 4:05 PM, Update: 20.10.2022 9:08:01 PM, Count : 1559

মুহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন: বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে আইন পাশের মধ্য দিয়ে ১৯৯২ সালের ২১ অক্টোবর প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষা সুবিধা থেকে বঞ্চিত জনগোষ্ঠির মাঝে শিক্ষার আলো পৌঁছে দেয়ার ব্রত নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিবশতবর্ষে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার আলো ঘরে ঘরে ছড়িয়ে দেয়ার দৃপ্ত প্রত্যয় নিয়ে তাঁর শিক্ষা কার্যক্রম বিস্তরণ করছে। এখানে এসএসসি থেকে পিএইচডি পর্যন্ত শিক্ষা গ্রহণ করা যায়। বিভিন্ন কারণে যারা সময়মত শিক্ষা গ্রহণ করতে ব্যর্থ হয়ে হতাশায় ডুবে গিয়েছিলেন, তাদের স্বপ্নের পুরণের শেষ ঠিকানা হয়েছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। জীবন জীবিকার কারণে কেউ অষ্টম শ্রেণী, এসএসসি বা কেউ এইচএসসি পর্যন্ত পড়া লেখা করে কোন ছোট খাটো চাকুুর করছেন বা মূল শিক্ষা থেকে ঝরে পড়েছেন। শিক্ষা জীবনে দীর্ঘ বিরতি থাকায় কোথাও শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পায় না, ঝরে পড়া এসব শিক্ষার্থীদের শিক্ষার মূলস্রোতে ফিরিয়ে শিক্ষিত জনগোষ্ঠীতে পরিণত করা-ই বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান উদ্দেশ্য। উন্মুক্ত ও দূরশিক্ষণে শিক্ষার একমাত্র ভরসা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য শিক্ষার হার শতভাগ করা ও দক্ষ জনশক্তি গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। গাজীপুরে প্রায় ৩৫ একর জমির উপর নান্দনিক, দৃষ্টিনন্দন ও মনোরম পরিবেশে তৈরি হয়েছে বাউবির মূল ক্যাম্পাস। যেখানে রয়েছে প্রায় এক হাজার আসন বিশিষ্ট বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ও ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে যেখানে একসাথে একাধিক সভা-সেমিনার ট্রেনিং প্রোগ্রাম করা সম্ভব। মনোরম পরিবেশের গেস্ট হাউজ, নমুনা গ্রাম, স্বয়ংসম্পূর্ন মিডিয়া সেন্টার, কম্পিউটার ল্যাব, এগ্রিকালচার ল্যাব, এগ্রিকালচার রিসার্চ মাঠ, শহীদ মিনার ও মুক্তিযুুদ্ধের স্মারক ভাস্কর্য। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় সমগ্র দেশজুড়ে ১২টি আঞ্চলিক ও ৮০টি উপ- আঞ্চলিক কেন্দ্রের মাধ্যমে দেশের প্রত্যান্ত অঞ্চলেও ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান করে আসছে। নামমাত্র খরচে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করা যায়। মুক্তিযোদ্ধাদের ছেলে মেয়ে, নাতিনাতনির বিনাখরচে পড়ালেখার ব্যবস্থা করছে এ বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থী সংখ্যায় দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ বিশ্ববিদ্যালয়। ফরমাল-নন ফরমাল প্রোগ্রামে প্রায় দশ লক্ষ শিক্ষার্থী এখানে পড়ালেখা করছেন। সারা দেশে প্রায় পঁচিশ হাজার টিউটর ও ষোল হাজার স্টাডি সেন্টারের মাধ্যমে এ শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন পেশাজীবী, চাকুরীজীবী বা যে কোন বয়সে এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রী অর্জন করা যায়। শুক্র ও শনিবার ক্লাস পরীক্ষা হওয়ায় সহজে স্টাডি সেন্টারের  ক্লাসে উপস্থিত থেকে শিক্ষা গ্রহন করতে পারে। কোন কারনে শিক্ষার্থী ক্লাসে উপস্থিত না থাকতে পারলে ঘরে বসে যাতে পড়ালেখা করতে পারে সেজন্য মেমোরি কার্ড বা এসডি কার্ড এর মধ্যে একডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ক্লাসের পড়ালেখার ভিডিও এবং অডিও শিক্ষার্থীদের প্রদান করা হয়। যে কোন মোবাইলে এ কার্ড ব্যবহার করে পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত থেকে শিক্ষাগ্রহন করা যায়। এছাড়া ইউটিউব, বাউবিটিউবে পূর্বে ধারণকৃত ক্লাস আপলোড করা রয়েছে যেখান থেকে একজন শিক্ষার্থী যে কোন সময় পড়ালেখা করতে পারে। বহুমুখী মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দোরগোড়ায় শিক্ষাসেবা পেঁৗছে দেবার বদ্ধপরিকর বাউবি। তথ্য, যোগাযোগ ও আধুনিক প্রযুক্তি সম্মৃদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয় এখন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, পেমেন্ট, রেজিস্ট্রেশন, ক্লাস, পরীক্ষা,  ফলাফল প্রকাশ, সার্টিফিকেট উত্তোলন, সংশোধন সবকিছু এখন অনলাইনে হয়ে থাকে। শিক্ষাসেবা প্রান্তিক পর্যায়ে পৌঁছানোর জন্য ওপেন টিভি পরীক্ষামূলক চালু করেছে যা এখন কুমিল্লা ও রংপুর অঞ্চলে সম্প্রচার কার্যক্রম শুরু করেছে। পরবতর্ীতে সরকারের অনুমোদন পেলে ক্যাবল অপারেটরের মাধ্যমে সারাদেশে সম্প্রচার করা হবে। তাছাড়া প্রায় পাঁচশত ই-বুক বাউবির ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা ইচ্ছা করলে যে কোন সময় তাঁর চাহিদামত বই ডাউনলোড করে পড়াশুনা করতে পারে, তাঁকে প্রিন্টেড বইয়ের জন্য অপেক্ষা করতে হয়না। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় দেশের সীমানা পেরিয়ে বিদেশের মাটিতে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করেছে। দক্ষিণ কোরিয়া, কাতার, সৌদি আরবে বসবাসরত প্রবাসি বাংলাদেশির জন্য এসএসসি, এইচএসসি ও বিএ/বিএসএস প্রোগ্রামে পড়ালেখার সুযোগ সৃষ্টি করেছেন। এসব দেশে বসবাসরত যে কোন বাঙালি প্রবাসী এখন পড়ালেখা করে তাদের ক্যারিয়ার উন্নত করতে পারবেন। সুতারং, শিক্ষা সেবা থেকে বঞ্চিতদের স্বপ্নের শেষ ঠিকানা হয়েছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়।

-লেখক: সেকশন অফিসার, তথ্য ও গণসংযোগ বিভাগ, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা সম্পাদক: এ. কে. এম জায়েদ হোসেন খান, নির্বাহী সম্পাদক: নাজমূল হক সরকার।
সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : মুন গ্রুপ, লেভেল-১৭, সানমুন স্টার টাওয়ার ৩৭ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।, ফোন: ০২-৯৫৮৪১২৪-৫, ফ্যাক্স: ৯৫৮৪১২৩
ওয়েবসাইট : www.dailybartoman.com ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Developed & Maintainance by i2soft