দুপুরের পর থেকে টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক রাস্তা ফাঁকা
Published : Sunday, 18 July, 2021 at 9:21 PM, Count : 635

এস.এম আওয়াল মিয়া, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে শনিবার রাত থেকে যানজট থাকলেও রোববার সকাল থেকে তা স্বাভাবিক হতে থাকে। দুপুর থেকে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক কম যানবাহন চলাচল করছে। যানজট না থাকায় নির্বিঘ্নে বাড়ি ফিরছে মানুষ।

আসন্ন ঈদকে কেন্দ্র গত কয়েকদিন ধরে বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে স্বাভাবিকের চেয়ে কয়েকগুন বেশি যানবাহন চলাচল করছে। বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলপ্লাজা সূত্র জানায়, গত শনিবার সকাল ছয়টা থেকে রোববার সকাল ছয়টা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় ৩২ হাজার ৭১৩টি যানবাহন সেতু পারাপার হয়েছে। স্বাভাবিক অবস্থায় ১২/১৩ হাজার যানাবহন পারাপার হয়। এর আগে শুক্রবার সকাল ছয়টা থেকে শনিবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত ৩৩ হাজার ৯১২টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। ফলে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে শুক্রবার ও শনিবার বিভিন্ন সময় বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে টাঙ্গাইল পর্যন্ত ২৫ থেকে ৩০ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। থেমে থেমে চলতে গিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা মহাসড়কে কাটাতে হয় যাত্রীদের। রোববার সকাল থেকে যানবাহনের চাপ কমতে থাকে। সেই সাথে কেটে যেতে থাকে যানজট। সকাল ১১টার মধ্যে মহাসড়ক যানজট মুক্ত হয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে।

দুপুর ১২টায় মহাসড়কের টাঙ্গাইল শহর বাইপাস মোড় থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক কম যানবাহন রাস্তায়। তাই ফাঁকা রাস্তায় দ্রুত গতিতে ছুটে চলছে যানবাহনগুলো। কোথাও থামতে হচ্ছে না। তবে সেতু এলাকায় গিয়ে দেখা যায় টোলপ্লাজা থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার যানবাহনের সাড়ি রয়েছে। সেতু কর্তৃপক্ষ জানান, টোল দিতে গিয়ে যানবাহনের এই লাইনের সৃষ্টি হয়েছে। তবে খুব বেশি সময় দাড়িয়ে থাকতে হচ্ছে না।

এলেঙ্গা সিএনজি স্টেশনে ঢাকা থেকে বগুড়াগামী মাইক্রোবাসের যাত্রী হাবিবুর রহমান জানান, ঢাকা থেকে তিন ঘন্টার কম সময়ে এলেঙ্গা পর্যন্ত চলে এসেছেন। কোথাও যানজটে পড়তে হয়নি। অন্যবার ঈদের আগে বাড়ি ফিরতে ঘন্টার পর ঘন্টা মহাসড়কে যানজটে আটকে থাকতে হতো। রাজশাহীগামী বাসের চালক সেলিম মিয়া জানান, রোববার সকাল থেকেই মহাসড়কে যানবাহনের চাপ নেই।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাত জানান, সিরাজগঞ্জের দিকে গাড়ি টানতে পারলে যানজট হবে না বলে আশা করা যাচ্ছে। তবে রোববার রাত থেকে আবার গাড়ির চাপ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা সম্পাদক: এ. কে. এম জায়েদ হোসেন খান, নির্বাহী সম্পাদক: নাজমূল হক সরকার।
সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : মুন গ্রুপ, লেভেল-১৭, সানমুন স্টার টাওয়ার ৩৭ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।, ফোন: ০২-৯৫৮৪১২৪-৫, ফ্যাক্স: ৯৫৮৪১২৩
ওয়েবসাইট : www.dailybartoman.com ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Developed & Maintainance by i2soft