সাধারণে অসাধারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
Published : Saturday, 24 February, 2018 at 9:09 PM, Count : 3112

মোতাহার হোসেন : শেখ হাসিনার পরিচয় বাংলাদেশের স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব এর সুযোগ্য কন্যা। শেখ হাসিনার আরও পরিচয় আছে- তিনি বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মতো এশিয়ার অন্যতম প্রাচীনতম দলের সভাপতিও তিনি। তার সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি আপাদমস্তক একজন বাঙালি ধর্মপ্রাণ মুসলিম নারী, একজন আদর্শ মাতা। এছাড়া একজন মানবতাবাদী ও বিপন্ন মানবতার আলোকবর্তিকা, উজ্বল নক্ষত্র। গরিব দুঃখী-মেহনতী মানুষের মুক্তির কাণ্ডারি, আপামর জনতার ভাগ্য উন্নয়নের রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন বিশ্বের দেশে দেশে সমাদৃত। তিনি দৈনিক ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১৭ থেকে ১৮ ঘন্টাই ব্যস্ত থাকেন রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ কাজে। পাশাপাশি চলে ইবাদত বন্দেগী, পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত। রাজনৈতিক দলের প্রধান দলীয় অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তাকেই সিদ্ধান্ত দিতে হয়। এত কিছুর পরও তিনি আপাদমস্তক একজন বাঙালি নারী। অন্যান্য বাঙালি নারীদের মতোই তিনি সুযোগ পেলেই গৃহস্থালীর কাজও করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। রান্না-বান্না করেন এবং আত্নীয়স্বজন, নাতি-নাতনিদের নিয়ে সময় কাটান।
গত শুক্রবার নাতি-নাতনিদের নিয়ে তার সরকারি বাসভবন গণভবনের সবুজ লনে, সবুজের বিপুল সমারোহে আবৃত উম্মুক্ত মাঠে আনন্দঘন সময় পার করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মধ্যে খানিক সময় নাতনির চুলের বেণী বেঁধেছেন। খানিক সময় দুরন্ত নাতি-নাতনিদের সঙ্গে মেতেছেন খুনসুটি আর হাস্যোল্লাসে। ছুটির দিন শুক্রবার এমনই এক অনিন্দ্য সুন্দর বিকেল কাটিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সে সময়কার দুটি ছবি শেয়ার করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন। এরপরই ছবি দুটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়।
প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন তার ফেসবুকে লেখেন, আজ শুক্রবার বিকেলে গণভবনে নাতি-নাতনিদের সঙ্গে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। বঙ্গবন্ধুর ছোট কন্যা শেখ রেহানা’র ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি’র সন্তান লীলা ও কাইয়ূস এর সাথে শেখ হাসিনা। সাধারণে অসাধারণ আমাদের আপা। আমাদের ঠিকানা। ছবি তুলেছেন সুমন দাস।
এর আগে মিয়ানমারের সামরিক জান্তা সরকারের নির্যাতন-নিপীড়ন থেকে পরিত্রাণে বাংলাদেশের কক্সবাজার, বান্দরবানে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ববাসীর কাছে একজন মানবতাবাদী, মানবদরদী, মানবতার উজ্বল নক্ষত্র হিসেবে স্বীকৃতি পান। কক্সবাজারে আশ্রিত রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শনে গিয়ে নির্যাতিত রোহিঙ্গা শিশুদের কোলে জড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর আদর এবং শান্ত্বনা দেয়ার দৃশ্য পুরো দুনিয়ার মানুষের দৃষ্টি কেড়েছিল। আবার এই দৃশ্য দেখে পীড়িত মানবতার ক্রন্দন ধ্বনি শুনতে পান অনেকেই।
এর আগে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রান্না ঘরে রান্নায় ব্যস্ত থাকার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পায়।  হাজার ব্যস্ততার মাঝেও হাতে কিছুটা সময় পেয়েই রান্না ঘরে ঢুকে রান্না করেন তিনি। গণভবনে রান্না করার দুটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। প্রশংসাসূচক বাক্য লিখে ছবি দুটি শেয়ার করতে থাকেন অনেকেই। এ ছবিই যেন প্রমাণ করে দেশ সেবার দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি নিজ ঘরেও কতোটা সহজে অতি সাধারণ হয়ে উঠতে পারেন তিনি।
ওই দুই ছবিতে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনের রান্না ঘরে রান্না করছেন শেখ হাসিনা। এর আগে ২০১৩ সালের জুলাই মাসের শেষ দিকে ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্য রান্না ঘরে ঢুকে রান্না করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছেলের জন্মদিন উপলক্ষে করা প্রধানমন্ত্রীর ওই রান্নার ছবিও তখন ভাইরাল হয় ফেসবুকে। সে সময় জন্মদিনে মায়ের হাতের পোলাও নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন সজীব ওয়াজেদ। সেখানে তিনি লিখেছিলে, ‘প্রধানমন্ত্রী আমার জন্য মোরগ পোলাও রান্না করছেন। আমি যত পোলাও খেয়েছি, তার রান্নাই সবচেয়ে সেরা।’
পুরনো ছবিতে দেখা গিয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী রান্না ঘরে রান্না করছেন। তিনি একহাতে কাঠের খুন্তি দিয়ে একটি পাতিলে মাংস নাড়ছেন, অন্যহাতে ওই পাতিলের আরেকটি অংশ ধরে রেখেছেন। সাদা শাড়ির ওপর একটি রান্নার অ্যাপ্রোন গায়ে জড়ানো প্রধানমন্ত্রী খোঁপা করা চুল আটকে রেখেছেন দুটি ক্লিপ দিয়ে।
নতুন ছবিতে দেখা গেছে, সাদা ছাই রঙ্গা শাড়ির উপর বেগুনী রঙের অ্যাপ্রোন জড়িয়ে নিবিষ্ট মনে দুটো পাতিলে কাঠের খুন্তি দিয়ে নাড়ছেন শেখ হাসিনা। একটি ছবিতে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে হাসছেন আরেকটি ছবিতে দেখা গেছে, শেখ হাসিনা খুব মনোযোগ দিয়ে রান্না করছেন।
অসাধারণ শেখ হাসিনা প্রায়ই সাধারণ হয়ে উঠতে ভালোবাসেন। নিরাপত্তার কঠোর বেড়াও তিনি মানেন না কখনও কখনও। এর আগে বাবার বাড়ি গোপালগঞ্জের  টুঙ্গিপাড়ায় নাতি-পুতিসহ ইমাম শেখ নামে এক ভ্যানওয়ালার ভ্যানে চড়ে গ্রাম বেড়িয়ে আলোচনার ঝড় তোলেন শেখ হাসিনা। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক কাটানোর সময় খুব বেশি পান না শেখ হাসিনা। তবে সুযোগ পেলে কী পরিমাণ আবেগী হয়ে উঠেন তার প্রমাণ রেখেছেন ২০১৭ সালে সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে একমাত্র বোন শেখ রেহানার সাথে তুষারপাত থেকে সৃষ্ট বরফ টুকরো নিয়ে বড় বোন সুলভ দুষ্টুমি করে। আর গতকাল এমন একটি ছবি প্রকাশ পায়- যাতে দেখা যায় তিনি গণভবনের উম্মুক্ত সবুজ মাঠে নাতি-নাতনি নিয়ে খুনসুটি আর হাসি উল্লাসে মেতে উঠেছেন।
এরও আগে এক ছবিতে দেখা গিয়েছিল, শেখ হাসিনা বোনের মাথায় নরম বরফ টুকরো ঢেলে দিচ্ছেন। ইতোপূর্বে পৃথিবীর দীর্ঘতম সাগর সৈকত কক্সবাজারে সাগরের নীলজলে হেঁটে বেড়ানোর ছবিও ফেসবুকসহ নানা মাধ্যমে দারুণ সব সংবাদ আর ফিচারের জন্ম দিয়েছিল। যখন শেখ হাসিনা ছিলেন একেবারেই সাধারণ একজন মানুষ, সেই সময়ে তার শিলপাটায় মসলা বাটার সাদাকালো ছবিটা এখনও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এখনো ঝলঝল করছে। সব মিলিয়ে তিনি আমাদের আপা, আমাদের প্রধানমন্ত্রী, আমাদের বিশ্বাস, আস্থা, আল ভালোবাসার বিশ্বস্ত ঠিকানা। তিনি দেশের সমৃদ্ধির রূপকার, সাধারণে এক অসাধারণ ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মহান আল্লাহর দরবারে আমাদের প্রার্থনা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আরও ভালো কাজ করার, মানুষের উন্নয়ন, কল্যাণ, অগ্রগতি, দেশের সমৃদ্ধি, বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্বল করার ক্ষেত্রে আরও অবদান রাখতে পারেন সেই ক্ষমতা দান করুন। জয় হোক শেখ হাসিনার, জয় হোক বিপন্ন মানবতার, জয় হোক শান্তির।
লেখক: সাংবাদিক ও কলামিস্ট। 



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক: আলহাজ্ব মিজানুর রহমান, উপদেষ্টা সম্পাদক: এ. কে. এম জায়েদ হোসেন খান, নির্বাহী সম্পাদক: নাজমূল হক সরকার।
সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক শরীয়তপুর প্রিন্টিং প্রেস, ২৩৪ ফকিরাপুল, ঢাকা থেকে মুদ্রিত।
সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : মুন গ্রুপ, লেভেল-১৭, সানমুন স্টার টাওয়ার ৩৭ দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।, ফোন: ০২-৯৫৮৪১২৪-৫, ফ্যাক্স: ৯৫৮৪১২৩
ওয়েবসাইট : www.dailybartoman.com ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Developed & Maintainance by i2soft